11/16/2017

ক্যামেরার জন্য সেরা স্মারফোন হলো Oppo F5 || Oppo F5 Smartphone review bangla

Oppo F5


Smartphone এটাতো বর্তমান সময়ে সবারই অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি ডিভাইসে পরিণত হয়েছে। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রয়োজন ছাড়াও ফ্যাশনের জন্য এটা খুব দরকার হয়ে থাকে।

স্মার্টফোনে কারণে বর্তমান সময়ে ছবি তোলাটা সকলের কাছে সহযোগিতা বিষয়ে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ বা এশিয়ার মার্কেটে অপ জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে তাদের ক্যামেরার ভালো কার্যকারিতার জন্য।

ইতিমধ্যে oppo smartphone এর পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে যে oppo f5 স্মার্টফোনটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন একটি ডিভাইস যেটা তার বুদ্ধিমত্তা খাটিয়ে সেরা চেলসির অভিজ্ঞতা দিতে সক্ষম। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ তারা এই নতুন ডিভাইসটির মার্কেটিং শুরু করে দিয়েছেন। কেননা ওপর স্মার্টফোনগুলো ফিচারের তুলনায় মার্কেটিং এ বিষয়ে জোর দিয়ে থাকে।

চলুন দেখে নেই আসলে এ স্মার্টফোনটি সেলফি ব্যতীত আর কি কি ভালো পারফরম্যান্স দিতে সক্ষম।
সবার প্রথম এক পলকে দেখে নিব এর পারফর্মেন্স গুলো অর্থাৎ এর ফিচারগুলো।

ডিজাইন

oppo f5 স্মার্টফোনটি বাজারে পাওয়া যাবে মোট তিনটি রঙে। এদের মধ্যে রয়েছে কাল সোনালী ও লাল রং পেয়ে রয়েছে 6 gb ram যেটাকে specially আলাদাভাবে বানানো হয়েছে। সোনালী রংয়ের স্মার্টফোনটি সামনে অংশ সাদা বাকি দুটি কালো। this matter যেহেতু একটা লম্বাটে তাই সামনে যদি কালো রং থাকে তাহলে সেটা বেশি মানানসই হয়।

পেছনের design a নেই তেমন বড় কোনো পরিবর্তন, রয়েছে মাঝ বরাবর oppo logo উপরই রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। পেছনের ক্যামেরা টি রয়েছে উপরের বাম কোনায় আর এর সাথেই রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ।



ডান পাশে রয়েছে power button আর বাম পাশে রয়েছে  সিম ও memory card tray সেই সাথে রয়েছে speaker.

যদিও স্মার্টফোনটি 6 inches phablet তবুও এতে হাতের সঙ্গে সুন্দর মানিয়ে যায়। আর পেছন দিকের এলুমিনিয়ামের ফিনিশিং বেশ স্মুথ।

display


design এরপর display নিয়ে কথা বলতে হবে এবছরের সেরা ডিসপ্লে ফোনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অপু এবার bezel বিহীন ডিসপ্লে ব্যবহার করেছে। ডিসপ্লেটির কালার ব্যালেন্স এবং ব্রাইটনেস খুবই নরমাল বা সাধারণ।

তবে এ স্মার্টফোনটি ips panel হওয়ায় আজ থেকে দেখলো এটি সঠিক কালার দেখাতে সক্ষম হবে। যেহেতু এটা একটু লম্বাটে display তাই একসাথে একাধিক অ্যাপ ব্যবহার করতে সুবিধা হবে। সব দিক বিবেচনা করলে এই স্মার্টফোনটির ডিসপ্লে তেমন একটা ভালো নয়।

camera

যদিও oppo smartphone দাবি করছে তারা বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন সেলফি ক্যামেরা ব্যবহার করেছে তবুও এই স্মার্টফোনটিকে সামনের ক্যামেরা তুলনায় পেছনের ক্যামেরা ভালো ছবি তুলতে সক্ষম। পেছনের camera aperture এফ/১.৮ যা অল্প আলোতে ভালো কাজ করে।

এই ফোনটির autofocus বেশ ভালো কাজ করে অল্প আলোতে নয় কম দেখা গেলেও নয়েজ কমানোর ফলে ডিটেইলের পরিমাণ কমে যাওয়া বেশ হতাশাজনক। পেছনের ক্যামেরা 1080p full hd video করতে সক্ষম তবে stabilization ভালো নয়।

সামনের ক্যামেরার aperture কম হওয়ায় অন্ধকারে পরিষ্কার ছবি দিতে অক্ষম। সামনের ক্যামেরার জন্য beautify mood বেশ খারাপ কাজ না করলেও এডিট করার ছবির মধ্যে সামান্য অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করা যায়।  এটা দিয়ে সহজেই বোঝা যায় ছবির চেহারা আর বাস্তবের মাঝে রয়েছে অনেক তফাৎ।

তবে এটিতে দারুণ এক অভিজ্ঞতা আপনি পাবেন সেটা হল 100 ডিগ্রি wide angle lens
20 মেগাপিক্সেল রেজুলেশন যা সেলফিতে ডিটেইলস আনতে সাহায্য করবে।

সবমিলিয়ে দান হিসেবে camera মোটামুটি ভালো। সেলফি সিরিজ হিসেবে সামনের ক্যামেরায় autofocus, optical stabilization, flash  শক্তিশালী air bubble ক্যামেরার মাধ্যমে আরও বাস্তবসম্মত effect আশা করা যায়।

Performance


oppo smartphone এর আসলে সরিষায় ভূত থাকে। কেননা এটা সবসময়ই ভালো পারফরম্যান্স দেয়ার ক্ষেত্রে দল হিসেবে সেই উপযোগী processor দেয় না। mediatek helio p23 chipset টি মাঝারি মানের ফোনের জন্য তৈরি । আটটি করে প্রতিটি সাধারণ ক্ষমতার cortex a53 প্রযুক্তির ।

processor performance qualcomm snapdragon 625 ঘরানার। দৈনন্দিন কার্যাবলীর এবং সাধারন গেম গুলো খেলে অনায়াসেই কাটিয়ে দেওয়া যাবে এর চাইতে বেশি কিছু করা সম্ভব নয়।

যদি আপনি game খেলতে ভালবাসেন তবে স্মার্টফোনের দিকে নজর দিলেই ভাল হয়। 4 gb বাস 6 gb যেটাতেই operate করেন না কেন কোনোটাতেই ram ঘাটতি পাওয়া যায়নি।

battery life


মিডিয়াটেক চিপ গুলোর সাধারণত ব্যাটারি সেভ করার জন্য তৈরি করা হয়ে থাকে তাই এই স্মার্টফোনটির ব্যতিক্রম নয়। 6 ইঞ্চি ডিসপ্লের এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে 32 শত এমএএইচ ব্যাটারি। দামের কথা বললে আমি বলব এটি এই স্মার্টফোনের জন্য যথেষ্ট নয়।

একটা দুঃখের বিষয় হলো এ স্মার্ট ফোনটিতে কোন ফাস্ট চার্জিং ফিচার যোগ করা হয়নি।

সেলফি যদি আপনার একমাত্র লক্ষ্য হয় তবে এই স্মার্টফোনটি সবচেয়ে সেরা। আর আপনি যদি বলেন সেলফির পাশাপাশি অন্যান্য দিকে ভালো পারফর্ম দরকার তাহলে এই স্মার্টফোনটি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। যদি এই দামের মধ্যে স্মার্টফোন কী নেই তবে এর চেয়েও ভাল পারফরমেনস পাবেন। যেহেতু স্মার্টফোনটি শুধুমাত্র স্মার্টফোনে সেরা সেলফি অভিজ্ঞতা জন্য বানানো হয়েছে তাই এটি শুধুমাত্র সেলফি জন্যই সেরা আর অন্যান্য ক্ষেত্রে সাদা মাটা।

স্মার্টফোনটির দাম


অপরের file 32 gb সংস্করণটি পাবেন 24 হাজার 990 টাকা এবং 64 gb সংস্করণটি পাবেন 32 হাজার 990 টাকায়।

একনজরে ভালো এবং খারাপ দিক


selfie camera সবচেয়ে ভালো
ব্যাক ক্যামেরা ও অনেক ভালো
বিল্ড কোয়ালিটি এটাও ভাল

পারফরমেন্স ভালো নয় battery life আরও ভালো হতে পারত এবং ডিসপ্লেটা আরো স্মুথ ঝকঝকে হওয়া উচিত ছিল।

No comments

Post a Comment